মাদ্রাসাছাত্রীকে অপহরণের সময় অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার ৫

লক্ষীপুর সংবাদদাতা  : লক্ষীপুরে বাবা ও বোন জামাইকে অস্ত্র ঠেকিয়ে এক মাদ্রাসাছাত্রীকে অপহরণের চেষ্টার ঘটনায় এলজি, চাইনিজ কুড়ালসহ ৫ যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শনিবার (২০ নভেম্বর) রাত সাড়ে ৯টার দিকে সদর উপজেলার চরশাহী ইউনিয়নের দক্ষিণ নুরুল্লাপুর গ্রাম থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

এ ঘটনায় রোববার (২১ নভেম্বর) দুপুরে চন্দ্রগঞ্জ থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একে ফজলুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেপ্তাররা হলেন— রাসেল, রবিউল , আরিফ , শাওন, মোরশেদ আলম।

ভুক্তভোগী মেয়ে স্থানীয় রাজাপুর ফাতিহা মোহম্মদীয়া দাখিল মাদ্রাসার নবম শ্রেণির ছাত্রী ও একই এলাকার মো. আলাউদ্দিনের মেয়ে।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে ওসি জানান, মাদ্রাসায় আসা যাওয়ার পথে রাসেল ওই ছাত্রীকে উত্যক্ত করতো। শনিবার রাতে তাকে তুলে নেওয়ার উদ্দেশ্যে রাসেল লোকজন নিয়ে ওঁৎ পেতে মাদ্রাসাছাত্রীর বাড়ির পাশে লুকিয়ে থাকে। দরজা বন্ধ থাকায় তারা ঘরে ঢোকেনি। ঘটনার সময় ছাত্রীর বড় বোনজামাই বাড়িতে আসলে ঘরের দরজা খোলা হয়। তাৎক্ষণিক আড়াল থেকে বের হয়ে এসে রাসেলসহ তার লোকজন ঘরে ঢুকে ছাত্রীর বোনজামাই ও বাবাকে অস্ত্র ঠেকায়। একপর্যায়ে জোরপূর্বক ছাত্রীকে নিয়ে ঘর থেকে বের হয়ে তিনটি সিএনজিচালিত অটোরিকশাযোগে তারা পালানোর চেষ্টা করে। এসময় চিৎকার শুনে একটি অটোরিকশাকে স্থানীয়রা আটক করে পুলিশে খবর দেয়।

ওসি একে ফজলুল হক আরও জানান, অস্ত্রসহ ৫ যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে ও অপহরণসহ পৃথক দু’টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। গ্রেপ্তারদের মধ্যে রাসেলের বিরুদ্ধে চন্দ্রগঞ্জ ও বেগমগঞ্জ থানায় অস্ত্র ও মাদক মামলা রয়েছে। জড়িত অন্যদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।