করোনায় বেলজিয়ামকে টপকে বিশ্বে অষ্টম ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি: করোনায় মোট মৃত্যুর নিরিখে বেলজিয়ামকে টপকে বিশ্বের অষ্টম স্থানে পৌঁছেছে ভারত।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তথ্য অনুসারে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় দেশে মৃত্যু হয়েছে ৩৮০ জনের। দেশে মোট মৃত্যু হলো ন’হাজার ৯০০ জনের। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ১০ হাজার ৬৬৭ জনের কোভিড রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। এ নিয়ে দেশে মোট আক্রান্ত হলেন তিন লাখ ৪৩ হাজার ৯১ জন। মহারাষ্ট্রে আক্রান্ত লাখের ঘরে ঢুকে পড়েছে আগেই। তামিলনাড়ু ও দিল্লি পাল্লা দিয়ে, পঞ্চাশ হাজারের দিকে।

আক্রান্তের পাশাপাশি মৃত্যু সংখ্যাও উদ্বেগ বাড়াচ্ছে। মহারাষ্ট্রে মৃত্যু হয়েছে চার হাজার ১২৮ জনের। গুজরাটে এক হাজার ৫০৫ জনের। রাজধানী দিল্লিতেও মৃত্যু সংখ্যা ধারাবাহিকভাবে বাড়ছে। সেখানে এক হাজার ৪০০ জনের প্রাণ কেড়েছে করোনা। পাঁচশোর গণ্ডি না পেরিয়েও মৃত্যুতে দেশের চতুর্থ স্থানে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ। রাজ্যে মোট মৃত ৪৮৫ জন। এরপর তালিকায় রয়েছে তামিলনাড়ু, মধ্যপ্রদেশ, উত্তরপ্রদেশ, রাজস্থান, তেলঙ্গানা ও হরিয়ানা। আক্রান্তের শীর্ষে থাকা মহারাষ্ট্রে ২৪ ঘণ্টায় দু’হাজার ৭৮৬ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন। মহারাষ্ট্রে মোট আক্রান্ত হলেন এক লাখ ১০ হাজার ৭৪৪ জন। এরপরই তামিলনাড়ু। সেখানে মোট আক্রান্ত ৪৬ হাজার ৫০৪ জন। রাজধানী দিল্লিতে মোট ৪২ হাজার ৮২৯ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। গুজরাটে মোট আক্রান্ত ২৪ হাজার ৫৫ জন।

এদিকে এবার করোনার কবলে দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। প্রবল জ্বর ও শ্বাসকষ্টে ভুগছেন। আজই তার করোনা পরীক্ষা করা হবে। মঙ্গলবার সকালে ৫৫ বছরের আপ নেতা ট্যুইটে জানিয়েছেন, রাত থেকেই প্রবল জ্বর। আর অক্সিজেনের মাত্রাও হঠাত্‍‌ কমে গিয়েছে। হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। সবাইকে আপডেট জানাবেন।

সোমবার দিল্লির করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনার জন্য সর্বদলীয় বৈঠক ডেকেছিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। সেখানে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে যোগ দিয়েছিলেন দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈনও। ফলে স্বাভাবিকভাবে সত্যেন্দ্র জৈনের শরীরে করোনা ধরা পড়ায় চিন্তা প্রশাসনে। কোয়ারানটাইনে যেতে হতে পারে অনেককেই।